Breaking News

কলকাতার অভিনেতা ঋষি কৌশিককে বিয়ে করলেন অভিনেত্রী সাফা কবির

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা ঋষি কৌশিক। বাংলাদেশেও রয়েছে তার বেশ জনপ্রিয়তা। নিজের নামের চাইতে স্টার জলসার ‘ইস্টি কুটুম’ নাটকে বাহার স্বামী হিসেবেই তার পরিচিতি সবচেয়ে বেশি। দুই বাংলার টিভি দর্শকদের কাছেই তিনি খুবই পছন্দের একজন অভিনেতা। ‘এখানে আকাশ নীল’ ধারাবাহিকেও দুর্দান্ত অভিনয় করে বাংলাদেশে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি।

তবে কি এবার বাংলাদেশি অভিনেত্রী সাফা কবির কলকাতার ঋষি কৌশিককে বিয়ে করেছেন? হ্যাঁ, ছবি দেখে এমনটাই মনে হবে সবার। তবে অবাক হওয়ার কিছু নেই। এটি শুধুমাত্র একটি নাটকের দৃশ্য। হ্যাঁ, কলকাতার এই ঋষি এবার কাজ করলেন বাংলাদেশের নাটকে। তিনি নায়ক হিসেবে জুটি বেঁধেছেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী সাফা কবিরের সঙ্গে। নাটকের নাম ‘চিলেকোঠার ভালোবাসা’। আফরিন জামান লীনার রচনা ও রাকেশ বসুর পরিচালনায় এর কাজ এখন চলছে শ্রীমঙ্গলে।

এতে অভিনয় প্রসঙ্গে ঋষি কৌশিক বলেন, ‘প্রথমবার বাংলাদেশে এসেছি। দারুণ লাগছে। যা দেখছি সবই ভালো লাগছে। ফ্লেভারটা যদিও পরিচিত। মনে হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গেই রয়েছি। আর প্রথমবারের মতো কাজ করছি এদেশের নাটকে। সেই অভিজ্ঞতাও দারুণ। পরিচালক রাকেশ বসুর সঙ্গে নাটকটিতে কাজের বিষয় নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরেই যোগাযোগ ছিলো। শুনেছি রাকেশ বেশ মানসম্মত নাটক নির্মাণ করেন। এতে আমার চরিত্রটি বেশ সুন্দর। সাফা, পুরো টিম- চমৎকার।’

নাটকের গল্পে দেখা যাবে, ঋষি ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠানের স্থপতি। অফিসের প্রয়োজনে বাংলাদেশের শ্রীমঙ্গলে আসেন। কিন্তু হোটেলে না থেকে একটি বাসার চিলেকোঠায় আশ্রয় নেন। সেই বাসাতেই থাকেন সাফা কবির। তাদের দুজনের মধ্যে গড়ে উঠে সম্পর্ক। কিন্তু পরিণতিটি খানিকটা ব্যতিক্রম। সেটা কেমন জানতে দেখতে হবে এই নাটক। রবি কিরণ প্রোডাকশন হাউজ থেকে নির্মিত নাটকটি শিগগিরই একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক রাকেশ বসু।

বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এখন পরিচিত মুখ মিশৌরী রশিদ। অভিনয় করেছেন নাটক ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রেও। তবে তিনি অভিনয়ে খুব একটা নিয়মিত নন। তবে জানিয়েছেন, বছরখানেকের মধ্যেই তিনি বড় বোন অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলার পথে হাঁটতে চান। এক কথায়, অভিনয়ে নিয়মিত হবেন তিনি। মিশৌরী বললেন, ছোটবেলায় বোনদের কাজ টেলিভিশনে দেখতাম, তখন থেকেই মনে হতো আমিও কেন করব না। বিশেষ করে মিথিলা ও মিম আপু মিলে ক্লোজ আপের একটা বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছিল। ওই সময়ই আগ্রহটা আরও বেড়ে যায়।

মিশৌরী ১৫টিরও বেশি বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছেন। তবে নাটক বা টেলিছবিতে অভিনয় করেছেন কম। কিন্তু এবার মিথিলার মতোই মিশৌরীও নিয়মিত হচ্ছেন অভিনয়ে। বছরের শুরুতে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘শিরোনামহীন’-এ অভিনয় করেছেন তিনি। মিশৌরী রশিদ বলেন, আমার পরিবার সংস্কৃতিমনা। ছোটবেলা থেকেই নাচ-গান শিখেছি।

শুরুটা পারিবারিকভাবে হলেও নিজের ইচ্ছাতেই আসলে অভিনয় করছি। বেশকিছু মোবাইল অপারেটরসহ বেশ কিছু পণ্যের বিজ্ঞাপনে কাজ করছি। এক বছর আগে সুবর্ণা মুস্তাফার একটি নাটকে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছি। এরপর অভিনয়ে কিছুদিন বিরতিতে ছিলাম। ফের নিয়মিত কাজ শুরু করেছি।

ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতো দেব। আর সঙ্গে অভিনেত্রী রুক্মিণী মিত্রের প্রেম কাহিনী সবারই জানা। তবে এবার নিজের গার্লফেন্ড নয় বরং বাংলাদেশের অভিনেত্রী জাহারা মিতুর সঙ্গে ১৫ দিন দুবাইতে থাকবেন দেব।

পাঠক এখানে গসিপের কোন গন্ধ নেই। বরং ‘কমান্ডো’ ছবির শুটিং এর কারণে পুরো টিম দুবাইতে যাবে। আর সেখানে ছবিটির দৃশ্যধারনের কাজ হবে। আগামী ১ নভেম্বর ঢাকা ছাড়বেন জাহারা মিতু, একই দিনে ইন্ডিয়া থেকে দুবাই যাবেন দেব।

চলতি বছরের শুরুতে বাংলাদেশের ‘মিশন সিক্সটিন’ সিনেমায় দেবের অভিনয়ের কথা শোনা যায়। কিন্তু সর্বশেষ তা আর হয়ে ওঠেনি। এরপর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া ঘোষণা দেয়, ‘কমান্ডো’ নামে নতুন সিনেমা নির্মাণ করছে তারা। আর এতে দেবের বিপরীতে অভিনয় করবেন জাহারা মিতু। মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৭’ প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ নির্বাচিত হন জাহারা মিতু। গত বছর জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খানের বিপরীতে ‘আগুন’ সিনেমায় অভিনয় করে আলোচনায় আসেন তিনি। বর্তমানে ওই সিনেমার কাজ আটকে আছে।

ঢালিউডের ‘স্টার কিড’ হিসেবে পরিচিত শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের একমাত্র পুত্র আব্রাম খান জয়। গত ২৭ সেপ্টেম্বর ছিলো তার চতুর্থ জন্মদিন। তবে কিছুদিন আগেই অপু বিশ্বাস মাকে হারান। তাই ছেলের জন্মদিনে এবার কোনো আয়োজনই করেননি তিনি। দিনটিতে ছেলেকে নিয়ে বগুড়ায় অবস্থান করছেন অপু। নানির মৃত্যুতে জয়ের জন্মদিনও এবার ছিলো সাদামাটা। এমনকি বাবা শাকিব খানও এবার জন্মদিনে ছেলেকে কাছে পাননি।

১০ বছর গোপনে সংসার করার পর ২০১৮ সালে ছেলেকে কোলে নিয়ে গণমাধ্যমের সামনে আসেন অপু। ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ঢাকাই ছবির এ তারকা দম্পতির বাস্তবজীবনেও বিচ্ছেদ হয়।

অপুর সঙ্গে শাকিবের ছাড়াছাড়ি হলেও বাবার দায়িত্ব ঠিকই পালন করেন শাকিব। মাঝেমধ্যেই সুযোগ পেলে ছেলেকে দেখতে যান। কোলে নিয়ে আদর-সোহাগ করেন আদরের পুত্রকে। কিন্তু অপুর সঙ্গে ডিভোর্সের কারণে বাপ-ছেলের এক ছাদের নিচে থাকা হয় না। ছেলের জন্মদিনে সে কথা লিখেই সামাজিক মাধ্যমে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন শাকিব।

সেখানে শাকিব লিখেছিলেন- ‘আমার এই ছোট্ট জীবনে ভালোবাসা, সম্মান, সম্মাননা সবকিছু পেয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ এখন পর্যন্ত আমার জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন তুমি। আমার ‘জয়’ বাবা। ইনশাআল্লাহ একদিন তুমি আমার চেয়েও সফল এবং অনেক ভালো একজন মানুষ হবে। ছাড়িয়ে যাবে বাবার স্বপ্নের সকল সীমানাকেও। তোমার চলার পথে বাবা আমৃত্যু ছায়া হয়ে পাশে থাকবে, যেমনটা এখনো আছে। এক চরম বাস্তবতার কারণে হয়তো তুমি আমি সবসময় এক ছাদের নিচে থাকতে পারছি না, কিন্তু আমরা ঠিকই আছি ভালোবাসা আর সুরক্ষার ছায়ায় ও মায়ায়। তোমাকে আমি সবসময় এবং আজীবন ভালোবাসি বাবা।’

এদিকে ছেলের জন্মদিনে কোনো আয়োজন করতে না পারায় অপু বিশ্বাসও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন।

অপু লিখেছিলেন- “বাবা এবার তোমার জন্মদিনের কোন আয়োজন-ই আমি করতে পারলাম না, তোমার দিদা তোমার পাশে নেই, আমরা আর কখনো তোমার দিদার দেখা পাবো না। আমি তোমার মা হিসেবে তোমাকে অনেক অনেক আশীর্বাদ করি, তোমার দিদার আশা পূরণ করে যেন আমি তোমাকে মানুষের মতো মানুষ করতে পারি।

আপনারা যারা যারা আমার জয়কে ভালোবাসেন তারা সবাই জয়ের জন্য অনেক অনেক আশীর্বাদ করবেন, জয় যেন মানুষের মতো মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারে। এটাই হবে জয়ের জন্য এবারের জন্মদিনের অমূল্য উপহার। -অপু বিশ্বাস”

About admin

Check Also

এবার ধীরে ধীরে নিজের শরীরকে ভালোবাসতে শিখলেন বিদ্যা বালান

ক্যারিয়ারের প্রথম দিকে বলিউডের প্রথাগত ফিটনেসে মনোযোগ দিলেও ধীরে ধীরে সেখান থেকে নিজেকে সরিয়ে আনেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *